জলঢাকায় আ’লীগের শোকর‌্যালিতে হামলা,পুলিশসহ আহত-৩০

জলঢাকা জাতীয় নির্বাচিত খবর নীলফামারী জেলা শিরোনাম শীর্ষ খবর

স্টাফ রিপোর্টরঃা
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে উপজেলা আ’লীগের গৃহিত কর্মসূচি ও শোকর‌্যালিতে হামলা করেছে সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফাসহ তার সমর্থকরা। এই হামলায় এক পুলিশ অফিসারসহ উভয় পক্ষের ৩০ জন আহত হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে পুলিশ টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে। থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসুচি গ্রহন করে উপজেলা আ’লীগ। দিবসের প্রথম প্রহরে বৃহস্পতিবার সকালে দলীয় কার্যালয়ে কালো ব্যাচ ধারন,জাতীয়,দলীয় ও কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্যেদিয়ে কর্মসূচি শুরু হয় এবং পরে শোকর‌্যালি বের হয়ে বাজার প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধু চত্বরে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করার সময় সেখানে আগে থেকে থাকা এমপি সমর্থকরা আ’লীগের শোক র‌্যালীতে হামলা চালায়। এতে এস.আই মামুন ও দুই পুলিশ সদস্য সহ উভয় পক্ষের প্রায় ৩০জন নেতাকর্মী আহত হয়। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পরে চিকিৎসাধীন এসআই মামুনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে উপজেলা আ’লীগ জিরোপয়েন্ট মোড়ে এসে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। এসময় বক্তব্যে রাখেন উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আনছার আলী মিন্টু,আর্ন্তজাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রেইব্যুনালের প্রসিকিটার ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আহমেদ হোসেন, উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক সহীদ হোসেন রুবেল, আইন সম্পাদক মহসিন আলী, পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল মজিদ,উপজেলা আ’লীগের দপ্তর সম্পাদক ও কাঁঠালী ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন তুহিন,শিমুলবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান হামিদুল হক,শৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান প্রানজিৎ কুমার রায় পলাশ,বালাগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম লিপন,কৈমারী ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল হক বাবু,উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সারোয়ার হোসেন ছাদের,সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কাদের,সাধারন সম্পাদক মশিউর রহমান বাবু প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা র‌্যালীতে হামলাকারী চিহ্নিত জামাত শিবিরের ক্যাডারসহ তাদের নেতৃত্বদানকারী সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফাকে দ্রুত গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবী জানান।
এ বিষয় উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক সহীদ হোসেন রুবেল এই প্রতিবেদককে বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ন কর্মসূচিতে জামাত-শিবিরের চিহ্নিত ক্যাডারদের নিয়ে সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফা হামলা করেছে। এই হামলা শোকর‌্যালীতে থাকা আর্ন্তজাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্র্যেইবুনালের প্রসিকিউটার ব্যারিষ্টার তুরিন আফরোজ কে হত্যার উদ্দেশ্যে করা হয়েছে বলে আমরা মনে করছি।
অভিযোগের বিষয়ে সাবেক এমপি গোলাম মোস্তফার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে, তিনি ব্যাস্ত আছেন, পরে কথা হবে বলে ফোন কেটে দেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।