জলঢাকায় পুনঃভর্তির নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়। প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

জলঢাকা নির্বাচিত খবর শিক্ষাঙ্গন শিরোনাম শীর্ষ খবর সারাদেশ
স্টাফ রিপোর্টারঃ

নীলফামারীর জলঢাকায় পুনঃভর্তির নামে টেংগনমারী বহু- মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগে উঠেছে। এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সকল শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বিদ্যালয়ের গেট বন্ধ করে দিয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করা ‘নীল দর্পন’ নামের একটি সামাজিক সংগঠন মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্ম প্রকাশ কবেন।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন করোনাকালের জন্য শিক্ষা মন্ত্রনালয় পুনঃ ভর্তিসহ কিছু ফি আদায় না করার জন্য নিদেশ প্রদান করেছেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক আশেকুর রহমান এই নিদেশ অমান্য করে অবৈধভাবে সকল শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের পুনঃভর্তি হওয়ার জন্য ৪৭০ টাকা জমা দেওয়ার নোটিশ দিয়েছেন এবং শিক্ষার্থীদের কাছে ম্যাসেছ পাঠিয়েছেন। এই নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে প্রধান শিক্ষককের সাথে কথা বলেও কোন কথাই তিনি কর্ণপাত করেনি। বাধ্য হয়েই আমরা আজ মানববন্ধন করছি।

মানববন্ধনে ৯ ম শ্রেনীর ওয়াসি ইসলাম শিশির,মাহাফুজা তাবাসুম মুন্নি,৬ষ্ঠ শ্রেনীর রাফিয়া সুলতানা বলেন, মহামারি করোনা আমাদের অভিভাবকগন এমনিতেই চরম সংকটে পড়েছে, তার উপর প্রধান শিক্ষককের অতিরিক্ত ফির চাপ।আমাদের শিক্ষা জীবনকে অনিশ্চিত মধ্যে ফেলেছে।

অভিভাবক আব্দুল ছাত্তার বলেন,এই স্কুলে আমার তিনজন ছেলে মেয়ে পড়ে,টাকার অভাবে একজনকে ভর্তি কাড়াইছি,বাকি দুইজনকে এখনো ভর্তি করতে পারি নাই, প্রধান শিক্ষক কোন কথাই শুনে না।
অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক আশিকুর রহমান মোবাইল ফোনে জানান,আমি সরকারি বিধি মোতাবেক ফি আদায় করেছি,কোন অতিরিক্ত টাকা আদায় করি নাই।
এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও খুটামারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ শামীম বলেন,অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয় আমি জানি না বা বিদ্যালয়ে কোন রেজুলেশন হয়নি, অতিরিক্ত টাকা আদায়ের দায় প্রধান শিক্ষককের।
পুনঃ ভর্তি ফি আদায়ের বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার চঞ্চল কুমার ভৌমিক জানান, বিদ্যালয় গুলোর পুনঃ ভর্তি ফি আদায়ের কোন নিয়ম নেই তবে কেউ নিয়ে থাকলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থ গ্রহন করা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।