বুড়িতিস্তা নদীর জলাধার উদ্ধারে জলঢাকায় পানি সম্পদ সচিবের মতবিনিময় সভা

জলঢাকা ডিমলা নির্বাচিত খবর শিরোনাম শীর্ষ খবর সারাদেশ
স্টাফ রিপোর্টারঃ
নীলফামারীর জলঢাকার ১২শ ১৭ একর বুড়িতিস্তার নদীর জলাধার উদ্ধার ও সরকারের বুড়িতিস্তা নদী নিয়ে মহাপরিকল্পনা নিয়ে মতবিনিময় সভা করেছে সিনিয়র সচিব পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় কবির বিন আনোয়ার। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার গোলনা ইউনিয়নের বুড়িতিস্তা সুইচ গেট এলাকায় সুফল ভোগীদের নিয়ে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জলঢাকা ও ডিমলা এলাকার বুড়িতিস্তায় সুফলভোগীরা উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময় সভায় পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব বলেন, বর্তমান সরকার, কৃষিবান্ধব সরকার। কৃষকদের সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করা হচ্ছে বর্তমান সময়ে। ১২শ ১৭ একর বুড়িতিস্তা রক্ষায় সরকার মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। পরিবেশ রক্ষায় সরকারের শতবর্ষী ডেল্টাপ্লানের  উপরস্থ পানি ব্যবহারে জোড়দার করা হচ্ছে। এসময় সুফলভোগীদের পক্ষে কয়েকজন বক্তব্য রাখেন। তারা বলেন, বুড়িতিস্তা প্রকল্প গ্রহনের ফলে তাদের অনেক ক্ষতি সাধিত হয়েছে। কৃষকদের ক্ষতি হয় এমন কোন প্রকল্প যাতে এ অঞ্চলে না হয় সেদিক বিবেচনার জন্য সচিবের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা। কৃষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন- খুরশীদ আলম আলো, ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম, জনগোষ্ঠী সংস্থার নেতা স্বপন প্রমূখ। জনগোষ্ঠী সংস্থার নেতা স্বপন বলেন, বুড়িতিস্তা নিয়ে সরকারের এ মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে এ অঞ্চলের কৃষকেরা না খেয়ে মরবে। পানির নিচে তলিয়ে যাবে তাদের আবাদী ফসল। তাই এ প্রকল্প প্রত্যাহার করার দাবী তুলেন তিনি। এ বিষয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার বলেন, প্রয়োজনে স্পেশাল সংস্থা আইডব্লিউএম অথবা সিইজিআইএস দ্বারা বিশেষ স্ট্যাডি করে কার্যকরী পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে দ্রুত সময়ে। তিনি সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতি আস্থা রাখতে বলেন, অনুষ্ঠানে আগত সুফলভোগীদের। মতবিনিময় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী প্রধান প্রকৌশলী উত্তরাঞ্চল, পানি  উন্নয়ন বোর্ড, রংপুর, জ্যোতি প্রসাদ ঘোষ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী পানি উন্নয়ন বোর্ড, রংপুর, মাহবুবর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী পানি উন্নয়ন বোর্ড, নীলফামারী, আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী জলঢাকা পওর উপ-বিভাগ-২, আব্দুল হান্নান প্রধান, জলঢাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব হাসান, ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় , কমিশনার (ভূমি) সিফাত মো: ইসতিয়াক ভুঁইয়া, ভাইসচেয়ারম্যান গোলাম পাশা এলিচ, প্রমূখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।