রাত পোহালেই কাল জলঢাকা পৌরসভার ভোট

জলঢাকা নির্বাচিত খবর শিরোনাম শীর্ষ খবর সারাদেশ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
কাল ৩০ জানুয়ারি শনিবার নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভার ভোট। কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ব্যালট পেপারসহ নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি। শুক্রবার জুম্মার নামাজর পর থেকে সন্ধ্যা পর্যÍন্ত উপজেলা পরিষদের রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে ভোট গ্রহণকারী কর্মকর্তাদের নিকট নির্বাচনী সরঞ্জামাদি বিতরণ করা হয়। পর্যাপ্ত নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সেগুলো কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌছানো হয়েছে। আগামীকাল শনিবার সকাল ৮টা হতে বিরতিহীন ভাবে বিকাল ৪টা পর্যÍন্ত ১৫ টি ভোট কেন্দ্রে ভোটারগন তাদের ভোটাধিকার প্রদান করবেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট আয়োজনের সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে রির্টার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফজলুল করিম জানিয়েছেন। তিনি সাংবাদিকদের আরও বলেন, মাঠ পর্যায়ে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কিছু গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র রয়েছে, সেখানে যাতে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে জন্য অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তিনি জানান, এই পৌরসভায় ইভিএম নয় ভোট হবে ব্যালট পেপারে। তাই প্রতিটি কেন্দ্রের দায়িত্বরত পুলিশ অফিসার ও আনসার সদস্যদের উপস্থিতিতে ব্যালট পেপার প্রিজাইডিং ও সহকারী প্রিজাইডিং এবং পালিং অফিসারগণ ভোটকেন্দ্রে নিয়ে গেছেন। রিটানিং অফিসার আরও জানান এবারের জলঢাকা পৌরসভার নির্বাচনে ১৫ টি কেন্দ্রে ১৫ জন প্রিজাইডিং, ১ শত সহকারী প্রিজাইডিং ও ২ শত পালিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৪ স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে। এছাড়াও পৌর এলাকায় দুই প্লাটুন বিজিবি, র‍্যাবের চারটি টহল টিম, আনসার বাহিনীর সদস্যগন ছাড়াও পুলিশের ইউনিফর্ম পরিহিত সদস্যসহ সাদা পোশাকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। এছাড়াও প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রট দায়িত্ব পালন করবেন। উল্লেখ্য যে, তৃতীয় ধাপের এ নির্বাচনে মেয়র পদ দুই নারী সহ ৬ জন প্রতিদ্বদিতা করছন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে মোঃমোহসীন, বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে লড়ছেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি বর্তমান মেয়র ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী কমেট , জাতীয় পার্টি থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে আফরোজা পারভীন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও সচেতন নাগরিক সমাজ সমর্থন নিয়ে নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে সাবেক মেয়র ইলিয়াস হোসেন বাবলু , জগ প্রতিক নিয়ে সতন্ত্রপ্রার্থী জিয়াউর রহমান চৌধুরী জিয়া ও মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবিনা আক্তার। এছাড়া ৯টি ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদ ৪২ জন ও সংরক্ষিত তিনটি ওয়ার্ড আসনের জন্য প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন ১৯ নারী সদস্য। এবারের জলঢাকা পৌরসভ ৩৩ হাজার ৬ শত ৩৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।এরমধ্য ১৬ হাজার ৯ শত ২১ জন পুরুষ ও ১৬ হাজার ৭ শত ১৩ জন নারী ভোটার।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।